৯ মাস বয়সের শিশুর জন্য কিভাবে সবজি চাপরি তৈরি করবেন?

রেসিপির বর্ণনা এবং পুষ্টিগুণ; “সবজি চাপরি” একটি স্বাস্থ্য সম্মত খাবার। এটি প্রধান খাবার হিসেবে তরকারির সাথে অথবা নাস্তা হিসেবে খাওয়া যায়। এটি বিভিন্ন রকম শাক-সবজি, চালের গুঁড়া এবং মসুর ডাল দিয়ে তৈরি করা হয়। বিভিন্ন ধরনের শাক-সবজি ব্যবহারের মাধ্যমে খাবারটিতে বৈচিত্র্যতা আরো পড়ুন...

৯ মাস বয়সের শিশুর জন্য কিভাবে সুজির হালুয়া তৈরি করবেন?

রেসিপির বর্ণনা এবং পুষ্টিগুণ: "সুজির হালুয়া” বহুল প্রচলিত মিষ্টিজাতীয় নাস্তা। এটি সুজি, দুধ, চিনি এবং নারকেল’র সমন্বয়ে তৈরি করা হয়। সুজি থেকে প্রচুর পরিমাণে শক্তি ও ভিটামিন বি কমপ্লেক্স পাওয়া যায় এবং এতে অল্প পরিমাণে আমিষ থাকে। দুধ যোগ করার ফলে আমিষের আরো পড়ুন...

৯ মাস বয়সের শিশুর জন্য কিভাবে কাচকি মাছের চপ তৈরি করবেন?

রেসিপির বর্ণনা এবং পুষ্টিগুণ “ছোট মাছের চপ” নাস্তা অথবা প্রধান খাবারের পাশাপাশি শিশুকে খাওয়া হবে। এটি তৈরি করা হয় চালের গুঁড়া, কাচকি মাছ ও সবজি দিয়ে। এই রেসিপিতে বিভিন্ন ধরনের সবজি ব্যবহার করা হয়েছে, যা হতে বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন, খনিজ লবণ আরো পড়ুন...

৬ মাস - ৩বছর শিশুর জন্য কিভাবে মিষ্টি কুমড়ার পায়েস তৈরি করবেন?

রেসিটির বর্ণনা ও পুষ্টিগুণ “মিষ্টি কুমড়ার পায়েস” মিষ্টি জাতীয় একটি খাবার। এই পুষ্টিকর খাবারটি সাগু, দুধ, মিষ্টিকুমড়া এবং গুঁড় দিয়ে তৈরি করা হয়। দুধ হচ্ছে আমিষ ও বি কমপ্লেক্সে ভিটামিন’র খুব ভালো উৎস। পাশাপাশি শিশুর বুদ্ধি বিকাশের জন্য প্রয়োজনীয় উপাদান ল্যাকটোজ দুধে আরো পড়ুন...

৯ মাস শিশুর জন্য কলিজার চপ কিভাবে তৈরি করবেন?

রেসিপির বর্ণনা এবং পুষ্টিগুণ চালের গুঁড়া, মুরগীর কলিজা ও সবজি তৈরি কলিজার চপ একটি পুষ্টিকর রেসিপি। এখানে চালের গুঁড়া শর্করা সমৃদ্ধ শক্তিদায়ক উৎস। কলিজা একটি প্রথম শ্রেণীর আমিষ যা টিস্যু গঠন করে ও খাবারের ক্যালরি মূল্য বাড়ায়। কলিজায় বেশী পরিমাণে আরো পড়ুন...

৬ মাস পূর্ণ হলেই শিশুকে দিতে হবে ডিমের সুজি-রেসিপি

রেসিপির বর্ণনা এবং পুষ্টিগুণ: ডিমের সুজি শিশুদের জন্য একটি প্রধান খাবার যাতে থাকে সুজি, ডিম, গুঁড় এবং তেল। সুজি আমাদের দেশে শিশুদের প্রথম বাড়তি খাবার হিসেবে অধিক প্রচলিত। এতে শক্তি, আমিষ ও সামান্য পরিমাণে খাদ্য আঁশ থাকে। ডিম শক্তির একটি আরো পড়ুন...

৬ মাস বয়সের শিশুদের অবশ্যই মুরগীর মাংসের খিচুড়ি খেতে দিন-রেসিপি

রেসিপির বর্ণনা এবং পুষ্টিগুণ : মুরগীর মাংসের খিচুড়ি তৈরিতে ব্যবহার করা হয়েছে চাল, মসুর ডাল, মুরগীর মাংস, সবজি এবং তেল, এই খাবারে শিশুদের চাহিদা অনুযায়ী যথেষ্ট শক্তি পাওয়া যায়। চাল ও ডাল মিশানোর ফলে এর আমিষের গুণগত মান অনেক বেড়ে আরো পড়ুন...

৯ মাস বয়সের শিশুদের জন্য মজাদার ও পুষ্টিকর রেসিপি চিড়ার পোলাও

“চিড়ার পোলাও” রেসিপিটি খাদ্যের ৪ টি মৌলিক খাদ্যের শ্রেণী দিয়ে প্রস্তুতকৃত বিভিন্ন ধরনের পুষ্টি উপাদান সমৃদ্ধ একটি খাবার। এই রেসিপিতে চিড়া ব্যবহৃত হয়েছে যা শস্যজাত খাবার। এটি ভিটামিন বি কমপ্লেক্সের ভালো উৎস। এছাড়া এতে রয়েছে ডিম যা আমাদের শক্তি, আমিষ আরো পড়ুন...