আমেরিকার সবচেয়ে বিপজ্জনক স্কুল কোনগুলো?

শিক্ষা আমাদের বেড়ে উঠার জন্য জ্ঞান এবং দৃষ্টিভঙ্গি প্রদান করে। পৃথিবীর কর্মকান্ডের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য এটি আমাদেরকে মতামত গঠন করতে সহায়তা করে, এবং আমাদের পরবর্তী জীবনের সাফল্যের ভিত্তি হিসেবে কাজ করে। ভাল পড়াশুনা এবং ভাল শিক্ষা অর্জনে শিক্ষক এবং ছাত্র-ছাত্রীর জন্য একটি নিরাপদ স্কুল অত্যাবশকীয়। কিন্তু মানব সমাজের যেখানে ভিন্ন ভিন্ন বয়স এবং সম্প্রদায়ের লোক প্রতিদিন একসাথে অনেকগুলো ঘন্টা কাটায়, সেখানে বিপদ এবং ভাঙ্গন দেখা দিবেই। আমাদের আজকের আমরা আমেরিকার স্কুল গুলোর দিকে নজর দিচ্ছি। কোনগুলো সবচেয়ে বিপজ্জনক স্কুল, কি কি ব্যাপারের কারণে সেগুলো বিপজ্জনক, কেনো কিছু স্কুল অন্যান্য গুলোর চেয়ে বেশী বিপজ্জনক। আমরা সকল প্রকার সরকারী উপাত্ত পর্যবেক্ষণ করেছি, মিডিয়াতে এ ব্যাপারে কি কি বলেছে তা দেখেছি, এবং পরিশেষে আমরা অপরাধের তালিকায় আমেরিকার সেরা ১০ টি স্কুলের একটি তালিকা তৈরি করেছি।

পেনসিলভানিয়া উইলকিনসবার্গ

পেনসিলভানিয়া উইলকিনসবার্গ মিডল স্কুল। পেনিসিলভানিয়ায় কমনওয়েলথ ফাউন্ডেশন কর্তৃক এক গবেষণায় পাওয়া গেছে, এটি হলো সবচেয়ে বাজে ভাবে পরিচালিত একটি স্কুল, এবং স্কুলটি একটি সহিংস অপরাধের জায়গায় তুলনায় প্রায় ৫ গুণ বেশী বিপজ্জনক। পেনিসিলভানিয়াতে সবচেয়ে বেশী অপরাধ সংঘটিত হয় উইলকিনসবার্গ, প্রতি ১০০ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে অপরাধের ঘটনা ঘটে ১৩৭ টি। উইলকিনসবার্গ সিনিয়র উচ্চ বিদ্যালয়ের হার হলো প্রতি ১০০ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে অপরাধের ঘটনা ৭৮ টি। এই দুইটিতে একত্রে ২০১০-২০১১ সালে শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীর উপর মোট ১৯২ টি হামলা হয়।

নর্থওয়েস্টার্ন হাই স্কুল

ম্যারিল্যান্ড এর বাল্টিমোর নর্থওয়েস্টার্ন হাই স্কুল। এই শহরটি কিছু জিনিসের জন্য বিখ্যাত, এডগার অ্যালেন পো এর টিভি শো, এবং বাল্টিমোরের দাঁড়কাক। কিন্তু এই শহরটিতে এখনো অনেক কাজ করা বাকি আছে। এই শহরে প্রতি ১ লক্ষ অধিবাসীদের মধ্যে ১৪১৭ টি অপরাধের ঘটনা ঘটে। এই স্কুলটি এমন একটি দূর্ভাগ্যজনক এলাকায় অবস্থিত যেখানে অপরাধমূলক আচরণ পুরো শিক্ষা ব্যবস্থাকে ছাপিয়ে গেছে।

ডেউইট স্কুল

নিউ ইয়র্ক ডেউইট স্কুল। এই স্কুলটির দেয়ালের ভিতর এর অবস্থা ব্রঙ্কস এর রাস্তা-ঘাট এর মতোই বিপজ্জনক হতো, যদি স্কুলে পৌঁছানোর পর পর শিক্ষার্থীদের মেটাল ডিটেক্টর দ্বারা পরীক্ষা করা না হতো। ২০১০ সালে নিয়মিতভাবে পরীক্ষা করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মোট ৩৩ বার বিভিন্ন ধরনের অস্ত্রশস্ত্র বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল। অস্ত্রশস্ত্রের মধ্যে ছিল পিতলের বানানো আঙ্গুলের গাঁট, বন্দুক, এবং চুরি। এটি নিউ ইয়র্কের সবচেয়ে গুরুতর সশস্ত্র স্কুল নামে পরিচিত। একই বছর (২০১০), এই স্কুলের নামে মোট ২৫২ টি সহিংসতা অথবা সংহতিনাশক আচরণ এর রিপোর্ট ছিল।

ফোর্ট পিয়ার্স ওয়েস্টউড হাই স্কুল

ফোর্ট পিয়ার্স ওয়েস্টউড হাই স্কুল সেন্ট লুসি। ২০১৭ সালের এক খবরে এই স্কুলের নাম প্রকাশ করা হয়, কারণ ঐ স্কুলের একজন ১০ম-গ্রেড এর ছাত্রকে গ্রেফতার হয়। তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগসমূহ হলো; স্কুল সীমানায় অস্ত্র বহন, অনুমতি ব্যতীত ক্ষতিকারক উপাদান বহন, বিক্রির উদ্দেশে গাঁজা বহন, এবং মাদক দ্রব্যে ব্যবহারের সাজসরঞ্জাম বহন।

স্ট্রবেরী ম্যানশন হাই স্কুল

ফিলাডেলফিয়াতে অবস্থিত স্ট্রবেরী ম্যানশন হাই স্কুল। ২০১৩ সালে এবিসি সংবাদ এই স্কুলটি সম্পর্কে একটি রিপোর্টে বলেন, স্কুলটিতে ৪৩৭ জন শিক্ষার্থীর জন্য হলগুলোতে মোট ৯৪ টি সিসি ক্যামেরা লাগানো আছে। এছাড়া প্রতিদিন সকালে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা করা দেখা হয় তারা কি টিন এর ফয়েল কোন ব্লেড এবং পেছনের ব্যাগে কোন ছুরি লুকিয়ে রেখেছে কিনা। এমনকি কিছু কিছু শিক্ষার্থী স্কুলে আসার আগে তাদের মুখে ভালো করে ভেসলিন মাখিয়ে আসে যাতে করে মারামারি করার সময় কোন দাগ না পড়ে। ২০১৩ সাল আগ পর্যন্ত এই স্কুলটি ৬২ বছর ধরে পেনিসিলভানিয়ার “নিরবচ্ছিন্ন বিপদজ্জঙ্ক স্কুল” তালিকায় ছিল। কিন্তু, স্কুলটির জন্য সৌভাগ্যের বিষয় হলো বর্তমান প্রিন্সিপাল লিন্ডা ক্লিয়াট-ওয়েনম্যান এখানে আসার পর থেকে তিনি এই সমস্যা গুলো উপড়ে ফেলার চেষ্টা করেন, যে কারণে স্কুলটি বর্তমানে আংশিক উন্নত হয়েছে।

ফিলাডেলফিয়ার আব্রাহাম লিংকন হাই স্কুল

ফিলাডেলফিয়ার আব্রাহাম লিংকন হাই স্কুল। ২০০৬ সালে যখন থেকে যুক্তরাষ্ট্রীয় আইন শুরু হয় তার পর থেকে এই স্কুলে প্রতি জন শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে প্রতি ২ বা ততোধিক বছরে কমছে কম একটি করে অপরাধ জমা পড়ত। এজন্য, ২০০৬ সালের পর থেকে এটি “নিরবচ্ছিন্ন বিপদজ্জনক স্কুল” তালিকায় চলে আসে। ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে, এই স্কুল থেকে ৩ জন শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করা হয়, তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা উত্তর-পূর্ব ফিলাডেলফিয়ার হোল্মেসবার্গ এলাকার একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষকে পিটিয়ে মেরে ফেলে।

জ্যাকসনভিল্লের নর্থওয়েস্ট মিডেল স্কুল

জ্যাকসনভিল্লের নর্থওয়েস্ট মিডেল স্কুল, ফ্লোরিডা। হ্যালো, আপনাকে বলছি। আপনি কি জানেন ডুভাল বিভাগটি হলো ফ্লোরিডা প্রদেশের সবচেয়ে বিপদজ্জনক বিভাগের মধ্যে একটি? স্কুলটির ২০১৪-২০১৫ শিক্ষাবর্ষে ডুভাল বিভাগে মোট ১১,৫৩৭ টি অপরাধ, সহিংসতা, এবং সংহতিনাশক আচরণ এর ঘটনা ঘটে। এই তালিকায় তাদের কাছাকাছি আছে মিয়ামি-দ্যাদ বিভাগটি, সেখানে মোট ৮,৮৫৪ টি ঘটনা ঘটে। নর্থ ওয়েস্টার্ন মিডেল স্কুল এর রিপোর্ট মোতাবেক এখানে প্রায় সময় অগ্নি-সংযোগ, যৌন অপরাধ, অস্ত্র আবিষ্কার, এবং প্রতি সপ্তাহে প্রায় ৩ টি হিংস্র মারামারির ঘটনা ঘটে।

সাউথ ফিলাডেলফিয়া হাই স্কুল

সাউথ ফিলাডেলফিয়া হাই স্কুল। এই এলাকাটি সন্ত্রাসীদের গ্যাং এবং তাদের সহিংসতার জন্য পরিচিত। কিন্তু এই গ্যাং গুলোর রাজত্ব শুধুমাত্র বাইরের রাস্তা-ঘাটে দেখা যায় না, তারা স্কুলের শ্রেণী কক্ষে এবং খেলার মাঠেও রাজত্ব করে থাকে। গ্যাং গুলোকে একটি বড় ধরনের সমস্যা বলে মনে করা হয়, এই গ্যাংগুলোর কারণে স্কুলটিতে দাঙ্গার পরিমাণ বেড়ে চলেছে। ২০১০ সালের দিকে ফিরে তাকালে আমরা সবচেয়ে বেশী যে খারাপ ঘটনাটি দেখতে পাবো তা হলো সে বছর এই স্কুলের ৭০ জন শিক্ষার্থী একটি ক্যাফেটেরিয়াতে হামলা, ভাঙচুর করে এবং বেশ কয়েকজন এশিয়ান শিক্ষার্থীদের মারধর করে।

কুইন্সের জন বোয়েন হাই স্কুল

কুইন্সের জন বোয়েন হাই স্কুল  এই স্কুলটির নাম সংবাদ মাধ্যমে বেশ কয়েকবার উঠে এসেছে। ২০১৭ সালে নিউ ইয়র্ক ডেইলি নিউজ স্কুলটি নিয়ে একটি সংবাদ প্রকাশ করে যেখানে তারা উল্লেখ করেন স্কুলটির বিরুদ্ধে অনেকগুলো রিপোর্ট পাওয়া যায়, যেমন একজন ছাত্রকে ছুরিকাঘাত করা হয়, এক পুলিশ অফিসারের উপর হামলা চালানো হয়, এবং একাধিক তরুণকে অস্ত্র এবং মাদক দ্রব্য সহ গ্রেফতার করা হয়।

ফ্লোরিডার কাটলার বে মিডেল স্কুল

ফ্লোরিডার কাটলার বে মিডেল স্কুল। এই স্কুলটিতে শিক্ষার্থী আছে মাত্র ১,১০০ জন, কিন্তু প্রায় সময় সংবাদ মাধ্যম গুলোতে এই স্কুলটি নিয়ে প্রতিবেদন করতে দেখা যায়। বিশেষত এই স্কুলে ব্যাপক মারামারির ঘটনা ঘটে, উদাহারণস্বরূপ, এই স্কুলে এক বছরের মধ্যে ১৮৮ টি রিপোর্ট জমা পড়েছিল। চুরি এবং মাদক দ্রব্য জনিত ব্যাপার গুলোই ছিল প্রধান কারণ। এই প্রদেশটির মধ্যেই একমাত্র এই স্কুলটিতে সবচেয়ে বেশী অপরাধমূলক ঘটনা ঘটে।

এটি হলো আমাদের করা আমেরিকার সবচেয়ে বিপজ্জনক স্কুলের তালিকা। আপনি কি এমন কোন স্কুলের নাম জানেন যেটির নাম এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন ছিল বলে মনে করেন? যদি থেকে থাকে, তা আমাদেরকে কমেন্ট এর মাধ্যমে জানান। আর প্রতিবারের মতই লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার করার মাধ্যমে আমাদের পাশে থাকবেন।

সকল মন্তব্য

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন